ঢাকা, মঙ্গলবার   ২১ সেপ্টেম্বর ২০২১ ||  আশ্বিন ৫ ১৪২৮

একাধিক বিয়ে ও পরকীয়ার অভিযোগ তুললেন প্রথম স্বামী হাবিব

ডেস্ক রিপোর্ট

প্রকাশিত: ১১:৪৯, ১৮ জুন ২০২১  

ত্ব-হা-সাবিকুন-নাহার-হাবিব

ত্ব-হা-সাবিকুন-নাহার-হাবিব

অনলাইনে ধর্মীয় বিষয়ে আলোচনা করে পরিচিত পাওয়া আবু ত্ব-হা মোহাম্মদ আদনানের সন্ধানে তার স্ত্রী সাবিকুন নাহারের সংবাদ গণমাধ্যমে প্রচারের পর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে চলছে আলোচনা সমালোচনা। এরই মধ্যে নতুন করে আলোচনায় আদনানের স্ত্রী সাবিকুন নাহার। শেখ হাবিব নামে এক ব্যক্তি নিজেকে দাবি করেছেন তিনি সাবিকুনের প্রথম স্বামী।

বুধবার (১৬ জুন) সাবিকুন নাহারের প্রথম স্বামী দাবি করে শেখ হাবিব ফেসবুক লাইভে এসে বলেন, ‘ত্ব-হার স্ত্রীর সংবাদ সম্মেলন দেখে নিশ্চিত হই সাবিকুন আমার প্রথম স্ত্রী’।

ফেসবুক লাইভে হাবিব জানান, সাবিকুন কাপাশিয়ার যে মাদ্রাসায় পড়েছেন, তিনি এবং তার মা (হাবিবের শাশুড়ি) সেই মাদ্রাসায় জামায়াতের রাজনৈতিক সমর্থনে কাজ করতেন। জামায়াত অধ্যুষিত ওই মাদ্রাসা থেকে বড় বড় নেতাদেরকে আটক হবার পর সেখানে তাদের মুক্তির জন্য দোয়ার আয়োজন করা হত। এবং সেখানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে বদদোয়া করা থেকে শুরু করে নানান কটূক্তি করা হত। হাবিব এই বিষয়টি উল্লেখ করে বলেন, আজ স্বামীর সন্ধানের জন্য সেই প্রধানমন্ত্রীর দ্বারস্থ হয়েছেন সাবিকুন নাহার।

সিঙ্গাপুর প্রবাসী শেখ হাবিব বর্তমানে মিরপুর নিবাসী। ফেসবুক লাইভে এসে তিনি জানান, আমার সাথে বিয়ের আগে সাবিকুনের একজন বয়ফ্রেন্ড ছিল, যার নাম তুষার। যার ঠিকানা বাউনিয়াবাদ, মিরপুর-১১। সিঙ্গাপুরে থাকায় তুষারের কথা জানতেন না হাবিব। দেশে এসে সাবিকুনকে বিয়ে করেন তিনি। ৭ বছর সংসার করেন। সংসার জীবনে তার চলাফেরা নিয়ে আপত্তি ছিল হাবিবের। এসব নিয়ে বনিবনা না হওয়ায় ডিভোর্স হয় তাদের। হাবিব যেটা সন্দেহ করেছিলেন ডিভোর্সের আগে, সেটাই সত্য প্রমাণ হয়। বিবাহিত অবস্থাতেই গড়ে তোলা সম্পর্কের জেরে সিরাজ নামে চট্টগ্রামের এক মধ্যবয়সীকে বিয়ে করে সাবিকুন।

সাবিকুন ও হাবিবের সংসারে তিনটি সন্তান হয়। একটি ভূমিষ্ঠ হওয়ার পরই মারা যায়। পরবর্তীতে এক ছেলে ওয়াসিফ এবং কন্যা ওয়ারিশার জন্ম হয়। এই সন্তানদের রেখে দেনমোহরের অর্থ বুঝে নিয়ে কোর্টে ডিভোর্স প্রক্রিয়া সম্পন্ন করে সংসার ত্যাগ করে সাবিকুন।

হাবিব লাইভে জানান, একইভাবে সিরাজের সাথেও ডিভোর্স হয় সাবিকুনের। দেনমোহরের সম্পূর্ণ অর্থ বুঝে নিয়ে তাকে ত্যাগ করে। এছাড়াও অনেক পুরুষের সাথে তার সম্পর্কের কথা লোকমুখে হাবিব জানতে পারেন।

সংবাদ সম্মেলনের পর নিজের প্রাক্তন স্ত্রীকে শনাক্ত করতে পারেন হাবিব। তিনি ত্ব-হাকে চেনেন না, তাই তার প্রসঙ্গটি এড়িয়ে যান। যদিও তাকে যেন খুঁজে পাওয়া যায়, সে বিষয়ে দৃষ্টি আকর্ষণ করেন হাবিব। তবে দেশবাসীকে সাবিকুন নাহার সম্পর্কে সতর্ক করে বলেন, একের পর এক পুরুষ বদলানো এই নারী সম্পর্কে যেন সবাই সতর্ক থাকেন। গণমাধ্যমে তাকে নিয়ে যে প্রশংসা করা হচ্ছে, তার উপযুক্ত নন তিনি।

স্বামী সন্তানের সাথে প্রতারণা করে সংসার ভেঙ্গেছেন বলে সাবিকুনের বিচার চেয়েছেন শেখ হাবিব।

উল্লেখ্য, আফছানুল আদনান (৩১) পরিবার নিয়ে রংপুর শহরে থাকেন। ১০ জুন থেকে তিনি নিখোঁজ। রংপুর থেকে ঢাকায় রওনা হওয়ার পর থেকে আবু ত্ব-হার ‘খোঁজ মিলছে না’ বলে জানিয়েছে তার পরিবার। একই সঙ্গে তার সঙ্গে থাকা আব্দুল মুহিত, মোহাম্মদ ফিরোজ ও গাড়িচালক আমির উদ্দিন ফয়েজেরও খোঁজ মিলছে না। সন্ধান পেতে আদনানের মা রংপুর কোতোয়ালি থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেছেন।

সর্বশেষ
জনপ্রিয়