ঢাকা, বুধবার   ২৪ জুলাই ২০২৪ ||  শ্রাবণ ৯ ১৪৩১

সেক্স সিম্বল শ্যারন স্টোন কেন ইউনূসের পক্ষে চিঠি দিচ্ছেন

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ১৫:৪৬, ৩১ আগস্ট ২০২৩  

সেক্স সিম্বল শ্যারন স্টোন কেন ইউনূসের পক্ষে চিঠি দিচ্ছেন

সেক্স সিম্বল শ্যারন স্টোন কেন ইউনূসের পক্ষে চিঠি দিচ্ছেন

ড. মুহাম্মদ ইউনূসের মতো সুদখোরের সুরক্ষা ও সুস্থতার বিষয়ে গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করে বিশ্বের ১৬০ জন বিশিষ্ট ব্যক্তিত্ব, বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে একটি খোলা চিঠি লিখেছেন। এরমধ্যে আছেন নব্বইয়ের দশকের সেক্সসিম্বল খ্যাত হলিউডের নায়িকা শ্যারন স্টোন।

সেক্সসিম্বল শ্যারন স্টোন এক সময়ে হলিউডে ডি গ্রেডের সিনেমায় অভিনয় করতেন। বর্তমানে তার আগের মতো রূপ লাবণ্য না থাকার কারণে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের পিআর করার মাধ্যমে নিজের পেট চালিয়ে থাকেন। আর এর প্রথম শিকার হলো ড. মোহাম্মদ ইউনূস। শ্যারন স্টোন ইউনূসের পক্ষে চিঠি দেয়া বাবদ ১০ হাজার ডলার উপঢৌকন নিয়েছেন বলে জানা যায়।

ইউনূসের পক্ষে চিঠি দেয়া ১৬০ জনের মধ্যে শ্যারন স্টোন অন্যতম। অথচ তিনি হচ্ছেন, একজন ৯০ দশকের ডি গ্রেডেড অভিনেত্রী। মূলত ইউনূসের পক্ষে দেয়া অধিকাংশ তথাকথিত নেতাই এমন নামধারী। কিছু বেনামি মানুষ একজন সুদখোরের পক্ষে এমন চিঠি লিখলে কোনো প্রভাব পড়ে বলে মনে করছে না সুশীল সমাজ।

এ প্রসঙ্গে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) সচিব মো. মাহবুব হোসেন বলেছেন, নোবেল বিজয়ীসহ বিশ্বের বিশিষ্টজনদের দেয়া বিবৃতি ড. মুহাম্মদ ইউনূসের বিরুদ্ধে চলমান মামলায় প্রভাব ফেলবে না। দুদক আইনে যে বিষয়ে বলা হয়েছে সে আলোকেই অনুসন্ধান ও তদন্ত হয়। তাই কোনো বিবৃতি মামলায় প্রভাব ফেলবে না। আইন অনুযায়ী মামলা চলবে।

উল্লেখ্য, শ্যারন স্টোনের মতো ডি গ্রেডেড অভিনেত্রী ছাড়াও ইউনূসের পক্ষে চিঠি দিয়েছেন পাকিস্তানি বিতর্কিত এক্টিভিস্ট রোশনেহ জাফর। এই এক্টিভিস্ট উলঙ্গপনাকে সমর্থন করার কারণে পাকিস্তান থেকে বিতাড়িত হয়েছেন। পরবর্তীতে পাকিস্তান থেকে বিতাড়িত হয়ে তিনি যুক্তরাষ্ট্রে ড. ইউনূসের সান্নিধ্যে আসেন। সেখানে ইউনূসের নানা অপকর্মের সাক্ষী হন এই রোশনেহ জাফর।

আরও পড়ুন
সর্বশেষ
জনপ্রিয়