ঢাকা, শুক্রবার   ৩১ মার্চ ২০২৩ ||  চৈত্র ১৬ ১৪২৯

খুলনাকে ৮৪ রানে অল আউট করে ঢাকার অবিশ্বাস্য জয়

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ১১:৩০, ২৫ জানুয়ারি ২০২৩  

খুলনাকে ৮৪ রানে অল আউট করে ঢাকার অবিশ্বাস্য জয়

খুলনাকে ৮৪ রানে অল আউট করে ঢাকার অবিশ্বাস্য জয়

জমজমাট লড়াইয়ের মধ্য দিয়ে শেষ হলো বিপিএলের নবম আসরে ঢাকায় মধ্য পর্বের ম্যাচগুলো। যেখানে শেষ দিনের দ্বিতীয় ম্যাচে খুলনা টাইগার্সের বিপক্ষে অবিশ্বাস্য এক জয় তুলে নিয়েছে ঢাকা ডমিনেটর্স।

মিরপুর শেরে বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে ১৯.৪ ওভারে অল আউট হওয়ার আগে ১০৮ রান সংগ্রহ করেছিল ঢাকা। মামুলি লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে ১৫.৩ ওভারে মাত্র ৮৪ রানে গুটিয়ে গেছে খুলনা। ঢাকার জয় ২৪ রানে।

রান তাড়া করতে নেমে শুরু থেকেই উইকেট হারাতে থাকে খুলনা। তামিম ইকবাল ও ইয়াসির আলি ছাড়া কেউই দুই অংকের ঘরে রান করতে পারেননি। সাজঘরে ফেরার আগে তারা করেন যথাক্রমে ৩০ ও ২১ রান।

শেষ ব্যাটার হিসেবে নাহিদ রানা বোল্ড হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে অবিশ্বাস্য জয়ের আনন্দে মাতে ঢাকার খেলোয়াড়রা। চলতি আসরে এটি দলটির দ্বিতীয় জয়। চার উইকেট শিকার করে এই জয়ে সামনে থেকে নেতৃত্ব দিয়েছেন তাসকিন আহমেদ।

এছাড়া নাসির হোসেন ও আল আমিন হোসেন দুটি এবং সালমান ইরশাদ ও আমির হামজা একটি করে উইকেট শিকার করেন। এই জয়ের পরও টেবিলের নিচেই থাকছে ঢাকা। খুলনার অবস্থান পাঁচে।

এর আগে টস জিতে আগে ফিল্ডিং করার সিদ্ধান্ত নেন খুলনা অধিনায়ক ইয়াসির আলি রাব্বি। বল হাতে ঢাকাকে প্রথমে নাস্তানাবুদ করেন নাহিদুল ইসলাম। টানা চার ওভার করে ৪ উইকেট শিকার করেন তিনি। 

নাহিদুলের শিকার হয়ে সাজঘরে ফেরার আগে মিজানুর ১ ও অ্যালেক্স ব্লেক ৩ রান করলেও খাতা খুলতে পারেননি উসমান ঘানি ও মোহাম্মদ মিঠুন। ৩৮ রানে ৪ উইকেট হারিয়ে খাদের কিনারায় চলে যায় ঢাকা।

সেখান থেকে ৪০ রানের জুটিতে পাল্টা প্রতিরোধ গড়েন সৌম্য সরকার ও নাসির হোসেন। মূলত সৌম্য একাই এদিন ঢাকার হয়ে লড়াই করেছেন। আউট হওয়ার আগে ৪৫ বলে ৫৭ রান করেন তিনি, যা দলের পক্ষে সর্বোচ্চ। 

দলের বাকি ব্যাটারদের মাঝে শুধু তাসকিন আহমেদ (১২) ও আল আমিন হোসেন (১০)* দুই অংকের ঘরে রান করতে পেরেছেন। খুলনার হয়ে নাহিদুল চারটি, নাসুম আহমেদ তিনটি এবং মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন, ওয়াহাব রিয়াজ ও নাহিদ রানা একটি করে উইকেট শিকার করেন।

সর্বশেষ
জনপ্রিয়