ঢাকা, সোমবার   ৩০ জানুয়ারি ২০২৩ ||  মাঘ ১৬ ১৪২৯

খাবারে কখন লবণ যোগ করা উচিত

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ১২:১৫, ২৭ নভেম্বর ২০২২  

খাবারে কখন লবণ যোগ করা উচিত

খাবারে কখন লবণ যোগ করা উচিত

একবার ভাবুনতো মাছ, মাংস সব রান্না হলো শুধু লবণ নেই; তাহলে কেমন হবে? প্রথম এবং মূল কাজ হচ্ছে খাবারে স্বাদ যোগ করা। এটি কখনো কখনো রান্নার ক্ষেত্রেও অনেক বড় ভূমিকা পালন করে। বেগুনের মতো কিছু সবজির অতিরিক্ত আর্দ্রতা বার করার জন্য সাধারণত লবণ ব্যবহার করা হয়। সাধারণত মাছ, মাংস রান্নার আগে ম্যারিনেট করার জন্যও লবণ ব্যবহার করা হয়।

তবে খাবারে লবণ বেশি হয়ে গেলেও খাবারের স্বাদ বিগড়ে যেতে পারে। তাই রান্না করার সময় সঠিক পরিমাণে লবণ যোগ করাটা অত্যন্ত জরুরি।  মূলত খাবারের স্বাদ ঠিক রাখতেই লবণ যোগ করা হয়ে থাকে। খাবারের স্বাদ বাড়ানোর পাশাপাশি লবণ মিষ্টি এবং অ্যাসিডের মধ্যে ভারসাম্য বজায় রাখে। 

যাই হোক, অতিরিক্ত লবণও বিপজ্জনক হতে পারে। কীভাবে এবং কী পরিমাণে লবণ ব্যবহার করা উচিত, জেনে নেয়া যাক।

>>লবণ খাবারে প্রবেশ করতে বেশ সময় নেয়। আর এটি খাবারের প্রাকৃতিক স্বাদ বাড়াতে ব্যবহার করা হয়। আর তা বাড়াতে এর বেশ খানিক সময় লাগে। সেই কারণে যখন খাবার ৬০ শতাংশ সেদ্ধ হবে, তখনই তাতে লবণ যোগ করা উচিত।

>>কিন্তু শেষে লবণ যোগ করা হলে এটি খাবারে স্বাদ তো যোগ করেই না, বরং এটিকে নোনতা করে দিতে পারে। উদাহরণ স্বরূপ, শাক-সবজি ভাজা বা সাঁতলানোর পরে লবণ যোগ করলে তা খাবারে প্রবেশের জন্য যথেষ্ট সময় পায়।

যেসব ক্ষেত্রে লবণের প্রয়োজন নেই:

কিছু খাবার রয়েছে, যেগুলোর মধ্যে লবণের প্রয়োজন হয় না। কিছু কিছু খাবারের বাকি উপকরণ লবণের মতো কাজ করে। কেউ যদি খাবারে লেবুর রস, সয়া সস কিংবা চিলি সস যোগ করেন, তা-হলে সেই খাবারে লবণ যোগ করার দরকার হয় না। কারণ এই জাতীয় উপাদানে লবণের পরিমাণ খুব বেশিই হয়।

লবণ দিয়ে যে খাবার আরো  সুস্বাদু করা যায়:

মিষ্টি খাবার তৈরির ক্ষেত্রেও কিন্তু এক চিমটি নুন যোগ করা হলে তার স্বাদ আরও বেড়ে যায়। আসলে লবণ মিষ্টি খাবার বা ডেজার্টের মধ্যে আলাদা মাত্রা যোগ করে। এমনকী মিষ্টি খাবার অতিরিক্ত মিষ্টির ভারসাম্যও বজায় রাখতে সাহায্য করে লবণ। তবে সে-ক্ষেত্রে পরিমিত পরিমাণে লবণ ব্যবহার করতে হবে। না-হলে ডেজার্টের স্বাদ নষ্ট হয়ে যেতে পারে।

এই বিষয়গুলো মাথায় রাখা জরুরি:

মাছ, মাংস রান্নার আগে এতে প্রথমে লবণ যোগ করে মেরিনেট করে নিতে হবে। এতে স্বাদ বাড়াবে। অনেকে বিশ্বাস করেন যে, প্রথমে লবণ যোগ করলে তা মাংসকে জ্যুসি রাখতে সাহায্য করে, শুষ্ক হয়ে যেতে দেয় না। অনেকেই বাড়িতে সস তৈরি করেন। আর সস তৈরি করার সময় রসুন এবং পেঁয়াজ ভাজতে গিয়ে এক চিমটি লবণ যোগ করা যায়।

সবজি সেদ্ধ করার আগেই পানিতে পরিমাণ মতো লবণ যোগ করা উচিত। পাস্তা এবং আলু সেদ্ধ করার সময় প্রথমেই পানিতে লবণ দিতে হবে।

সর্বশেষ
জনপ্রিয়