ঢাকা, সোমবার   ১৭ জানুয়ারি ২০২২ ||  মাঘ ৩ ১৪২৮

বাসের অর্ধেক ভাড়া আন্দোলনে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির পরিকল্পনা করছে বিএনপি-জামায়াত

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ১৫:৫৯, ২৯ নভেম্বর ২০২১  

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

বাসে অর্ধেক ভাড়া (হাফ পাস) চালু ও নিরাপদ সড়কের দাবিতে শিশু-কিশোরদের চলমান আন্দোলনে ঢুকে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির পরিকল্পনা করছে বিএনপি-জামায়াতের নেতারা। পুলিশের একাধিক সূত্র বলছে, ২০১৮ সালের নিরাপদ সড়ক আন্দোলনকে অন্য খাতে নেওয়ার চেষ্টা করেছিল বিএনপি-জামায়াত। এবারও তারা সেই চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।

জানা গেছে, ১১ দিন ধরে বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ছাত্রছাত্রীরা রাস্তায় নেমে বিক্ষোভ সমাবেশ করছে। গত কয়েক দিনের মতো গতকাল রোববারও (২৮ নভেম্বর) তারা রাস্তায় নামে ও বিভিন্ন স্লোগান দেয়। তারা যানবাহন থামিয়ে কাগজপত্রও পরীক্ষা করেছে।

শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের মধ্যেই রোববার জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে আয়োজিত সমাবেশ থেকে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, ‘তাদের (শিক্ষার্থীদের) লেখাপড়ার জন্য, শিক্ষার জন্য, উন্নত জীবনের জন্য তাদের দাবির প্রতি আমরা সম্পূর্ণ সমর্থন জানাচ্ছি।’ তার এই সমর্থনের পরই প্রশ্ন উঠেছে ২০১৮ সালের মতই বিএনপি শিক্ষার্থীদের আন্দোলনকে ভিন্ন খাতে নেওয়ার চেষ্টা করছে কিনা?

সূত্র জানায়, কয়েক দিন ধরে শিক্ষার্থীদের হাফ পাস আন্দোলন পর্যবেক্ষণ করছিলেন বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান। আন্দোলনের এক সপ্তাহ পার হওয়ার পরই এতে সমর্থন দিতে নির্দেশ দেন ফখরুলকে। বিএনপির লন্ডন সূত্র জানায়, খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থা নিয়ে দেশের মানুষের সহানুভূতি আদায়ের জন্য নানাভাবে মিথ্যাচার করে চলেছে বিএনপির নেতারা। সেইজন্য ৮ দিনের কর্মসূচিও পালন করছে তারা। নিরাপদ সড়কের আন্দোলনে যখনই হাজার হাজার জমায়েত হবে তখন শিক্ষার্থীদের সাথে ছাত্রদল-শিবিরের নেতাকর্মীরা নেমে পরিস্থিতি ঘোলাটে করবে। একদিকে খালেদা জিয়ার চিকিৎসার নামে বিএনপি-জামায়াতের নেতাকর্মীরা রাজপথে বিশৃঙ্খলা করবে, অপরদিকে হাফ পাস আন্দোলনে নেমে শিবির-ছাত্রদল বিশ্ববিদ্যালয়ে সন্ত্রাস সৃষ্টি করবে। এভাবে সরকারকে বেকায়দায় ফেলানোর চেষ্টা করবে।

পুলিশের একাধিক কর্মকর্তা বলেন, ২০১৮ সালে নিরাপদ সড়ক আন্দোলনের শেষে সুযোগসন্ধানীরা আওয়ামী লীগ অফিসের ভেতর ধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে, এমন অপপ্রচার চালায়। আন্দোলনরত ছাত্রছাত্রীরা একপর্যায়ে আওয়ামী লীগ অফিসের দিকে যাওয়ার চেষ্টা করেছিল। সেখানে বিএনপি-জামায়াতের ইন্ধন ছিল। সাধারণ শিক্ষার্থীদের আবেগকে কাজে লাগিয়ে দেশ অচল করার পরিকল্পনা সেসময়য় পুলিশ নস্যাৎ করে দিয়েছিল। এবারও সেরকম আলামত দেখা যাচ্ছে। তবে পুলিশ সতর্ক আছে। শিক্ষার্থীদের ন্যায্য আন্দোলনে নেমে কেউ যেন ঘোলা পানিতে মাছ স্বীকার করতে না পারে সেজন্য আইন শৃঙ্খলা বাহিনী সব ধরনের ব্যবস্থা নিয়েছে।

সর্বশেষ
জনপ্রিয়