ঢাকা, সোমবার   ০৪ জুলাই ২০২২ ||  আষাঢ় ১৯ ১৪২৯

২০৬টি পাথর বের হলো কিডনি থেকে

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

প্রকাশিত: ১৪:৫৯, ২০ মে ২০২২  

সংগৃহীত

সংগৃহীত

দীর্ঘ দিন ধরে তীব্র ব্যথায় কষ্ট পাচ্ছিলেন ভারতের হায়দ্রাবাদের নালগোন্ডার এক বাসিন্দা। শেষ পর্যন্ত ‘আল্ট্রা সাউন্ড’ পরীক্ষায় জানা যায়, কিডনিতে পাথর রয়েছে ওই ব্যক্তির। একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি হতে অস্ত্রোপচারের সিদ্ধান্ত নেন চিকিৎসকরা। সেই অস্ত্রোপচার করে ওই ব্যক্তির কিডনি থেকে বের করা হয়েছে ২০৬টি পাথর।

গতকাল বৃহস্পতিবার (১৯ মে) এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি।

প্রতিবেদনে জানানো হয়, হায়দ্রাবাদের অ্যাওয়ার গ্লেনিগেলস গ্লোবাল হাসপাতালের চিকিৎসকরা কিহোল সার্জারির মাধ্যমে গুরুত্বপূর্ণ এই অপারেশনটি সম্পন্ন করতে সময় নেন এক ঘণ্টা।

কিডনি থেকে পাথর বের করা আলোচিত ওই রোগীর নাম বীরমল্ল রামলক্ষমাইয়া। প্রায় ৬ মাস ধরে কোমরে তীব্র ব্যথায় ভুগছিলেন ৫৬ বছর বয়সী ওই ব্যক্তি। তীব্র এই ব্যথা গরমের মাসগুলোতে তাপমাত্রা বৃদ্ধির সঙ্গে সঙ্গে আরও বেড়ে যায়।

স্থানীয় চিকিৎসকের পরামর্শে ওষুধ খেয়ে সাময়িকভাবে যন্ত্রণা কমলেও স্থায়ী কোনও সমাধান হয়নি। মূলত টানা ব্যথা হওয়ার কারণে তিনি যেমন যন্ত্রণায় কষ্ট পাচ্ছিলেন ঠিক তেমনি তিনি কোনো কাজ করতে পারছিলেন না। পরে এই ব্যথা নিয়েই হাসপাতালে যান বীরমল্ল।

অ্যাওয়ার গ্লেনিগেলস গ্লোবাল হাসপাতালের সিনিয়র চিকিৎসক ডা. পুলা নবীন কুমার বলেন, ‘সাময়িক অনুসন্ধান এবং আলট্রাসাউন্ড স্ক্যান থেকে বীরমল্ল রামলক্ষমাইয়ার কিডনিতে একাধিক পাথর রয়েছে বলে দেখা যায়। পরে সিটি কাব স্ক্যান করেও পাথর থাকার বিষয়ে নিশ্চিত হই আমরা।’

তিনি জানিয়েছেন, রোগীর অবস্থা সঙ্কটজনক থাকায় তাৎক্ষণিক কিহোল সার্জারির সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছিল। অপারেশন করে ওই রোগীর কিডনি থেকে পাথরগুলো বের করা হয়েছে। অপারেশনের পর বীরমল্লার শারীরিক অবস্থা স্থিতিশীল রয়েছে।

ওই হাসপাতালের চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, গরমকালে উচ্চ তাপমাত্রার কারণে দেহের তাপমাত্রা বেড়ে যায়, ফলে ডিহাইড্রেশন হয় এবং সেখান থেকেই কিডনিতে পাথর জমার মতো সমস্যা তৈরি হওয়ার আশঙ্কা থাকে।

আর তাই গরমের মধ্যে শরীরকে সতেজ রাখতে মানুষকে আরও বেশি পরিমাণে পানি এবং সম্ভব হলে ডাবের পানি পানের পরামর্শ দিয়েছেন চিকিৎসকরা।

সর্বশেষ
জনপ্রিয়