ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ২৫ জুলাই ২০২৪ ||  শ্রাবণ ৯ ১৪৩১

বিএনপির শেষ ভরসা পেট্রলবোমায়

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ১৬:৫৪, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২৩  

বিএনপির শেষ ভরসা পেট্রলবোমায়

বিএনপির শেষ ভরসা পেট্রলবোমায়

বর্তমান সরকারের অধীনে কোনো নির্বাচনে অংশ নেবে না বিএনপি। এমনকি নির্বাচন হতেও দেবে না তারা। এ লক্ষ্যেই দীর্ঘদিন ধরেই সরকার পতন আন্দোলনের নামে নানা নাশকতামূলক কর্মকাণ্ড চালিয়ে আসছে বিএনপি। কিন্তু এসব কর্মকাণ্ডে সরকারকে বিন্দুমাত্র চাপে ফেলতে পারেনি বিএনপি। জনগণ সমর্থন দেয়নি তাদের।এ অবস্থায় বিএনপির নীতি-নির্ধারণী পর্যায়ের নেতারা বলছেন, আগামী দুই মাস তাদের জন্য গুরুত্বপূর্ণ সময়। এই সময়ের মধ্যেই তারা সরকারকে বেকায়দায় ফেলতে আরো কঠোর পদক্ষেপ নেবেন।

দলটির বিভিন্ন পর্যায়ের নেতারা জানান, অক্টোবরের প্রথম সপ্তাহ থেকেই বড় ধরনের রাজনৈতিক কর্মসূচি ঘোষণার পরিকল্পনা আছে নীতি-নির্ধারকদের।

এদিকে বিএনপির সূত্র বলছে, ঢাকা ঘেরাও, সচিবালয় ঘেরাও, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় ঘিরে কর্মসূচিসহ নানা কর্মসূচি নিয়ে আলোচনা হচ্ছে দলের অভ্যন্তরে। কিন্তু এমন কর্মসূচি দিয়ে সরকারের পতন ঘটানো যাবে না বলে মনে করে দলের একটি বৃহৎ অংশ। এ কারণে রাজপথের নিয়ন্ত্রণ নিতে পেট্রলবোমায় শেষ ভরসা রাখতে চান বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান।

সূত্রটি আরো জানিয়েছে, সম্প্রতি বিএনপির নীতি-নির্ধারকদের সঙ্গে লন্ডন থেকে ভার্চুয়ালি বৈঠক করেন তারেক রহমান। সে সময় তিনি বলেছেন- আন্দোলনের ফল পেতে মানুষের মধ্যে আতঙ্ক তৈরি করতে হবে। মানুষ রাস্তায় নামা বন্ধ করলে সরকার চাপে পড়বে। এজন্য ২০১৩-২০১৪ সালের মতো আবারো পেট্রলবোমা হামলা চালাতে হবে। কারণ, মানুষ মরলেই আতঙ্ক ছড়াবে।

এ বিষয়ে রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা বলেন, বিএনপি এখন ক্ষমতায় যেতে মরিয়া। তারেক রহমানসহ বিএনপি নেতারা মনে করেন- আগের মতো পেট্রলবোমা মারলেই মিলবে সফলতা। এ কারণে মার্কিন ভিসানীতির তোয়াক্কা না করে আবারও মানুষ হত্যার মিশনে মাঠে নামার প্রস্তুতি নিচ্ছে তারা। তবে জনগণ আগের চেয়ে অনেক সচেতন। এ কারণে বিএনপির কোনো ধ্বংসাত্মক কর্মকাণ্ডই সফল হবে না।

আরও পড়ুন
সর্বশেষ
জনপ্রিয়